মঙ্গলবার, ২৪ মে ২০২২, ০৮:৪২ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
লোহাগাড়ায় আদালতের নির্দেশ অমান্য করে রাস্তা নির্মাণ লোহাগাড়ায় শ্রেষ্ঠ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আলহাজ্ব মোস্তফিজুর রহমান কলেজ লোহাগাড়ায় নৌকার বিদ্রোহীদের নেতৃত্বে না আনার দাবি তৃণমূলের পুলিশ সদস্যের কব্জি বিচ্ছিন্নের ঘটনায় প্রধান আসামী কবিরসহ গ্রেপ্তার ২ লোহাগাড়ায় বসতঘর ও কবরস্থানের জায়গা দখল চেষ্টার অভিযোগ লোহাগাড়ায় ভূমি সেবা সপ্তাহের উদ্বোধন লোহাগাড়ায় জমি নিয়ে বিরোধের জেরে বসতঘর ভাংচুর লোহাগাড়ায় রোহিঙ্গাদের ভোটার না করার বিষয়ে সতর্ক করলেন ইউএনও।। চট্টগ্রাম অবৈধভাবে মাটি কাটায় লোহাগাড়ায় ডাম্প ট্রাক ও এক্সকেভেটর জব্দ লোহাগাড়া থেকে একজন মানবিক ইউএনও’র বিদায়

সরকারি কর্মচারীরা জনগণকে সেবা দিতে বাধ্য : প্রধানমন্ত্রী

প্রতিবেদকের নাম
  • আপডেটের সময় : বুধবার, ৬ অক্টোবর, ২০২১
  • ৯৯ নিউজ ভিউ

জনগণের প্রকৃত সেবক হিসেবে কাজ করতে সরকারি কর্মকর্তাদের আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বলেছেন বঙ্গবন্ধুর পদাঙ্ক অনুসরণ করে তিনি নিজেও জনগণের একজন সেবক।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘দেশের মালিক জনগণ। আমাদের সংবিধানের সপ্তম অনুচ্ছেদেও এই কথা বলা আছে। কাজেই সেই শিক্ষাটাই তিনি দিতে চেয়েছিলেন। বাংলাদেশের সংবিধানের ২১ এর ২ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী প্রতিটি সরকারি কর্মচারী সার্বক্ষণিকভাবে জনগণের সেবা প্রদানে বাধ্য।’

৬ অক্টোবর ১১৯তম এবং ১২০তম আইন ও প্রশাসন প্রশিক্ষণ কোর্সের সমাপনী এবং সনদ বিতরণী অনুষ্ঠানে উপরোক্ত কথাগুলো বলেন প্রধানমন্ত্রী।

সনদপ্রাপ্ত সবাইকে অভিনন্দন জানিয়ে সরকার প্রধান বলেন, বিচারের বাণী যাতে নিভৃতে না কাঁদে এবং আইনের যথাযথ প্রয়োগের মাধ্যমে যেন সাধারণ মানুষ ন্যায়বিচার পায় তা নিশ্চিত করতে হবে।

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, প্রশাসনের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের পদোন্নতি, সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি ও প্রশিক্ষণের সুযোগ তৈরি করা হয়েছে। সরকারের লক্ষ্য জনবান্ধব প্রশাসন গড়ে তোলা। প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী হিসেবে আপনাদের মাঠ পর্যায়ে গিয়ে কাজ করতে হবে জনগণের জন্য। জনগণের সেবক হিসেবে।

এ সময় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন ছিল দেশের প্রতিটি মানুষ খাদ্য পাবে, আশ্রয় পাবে, শিক্ষা পাবে, উন্নত জীবনের অধিকারী হবে। তার স্বপ্ন থেকে এটাই প্রতীয়মান হয় যে, তিনি কী কারণে সারাটা জীবন সংগ্রাম করেছেন। মাত্র সাড়ে তিন বছর সময় পেয়েছিলেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। একটি প্রদেশ ছিল বাংলাদেশ। সংখ্যাগরিষ্ঠতা থাকা সত্ত্বেও সকল সুবিধা থেকে ছিল বঞ্চিত। স্বাধীনতার পর তিনি রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব নেন। যেখানে একটি টাকাও রিজার্ভ মানি ছিল না। কোনো খাদ্য ছিল না। সেভাবেই শূন্য থেকে যাত্রা শুরু করেন বঙ্গবন্ধু। বঙ্গবন্ধু একদিক থেকে ধ্বংসপ্রাপ্ত বাংলাদেশকে গড়ে তোলেন, অন্যদিকে দেশের আর্থ সামাজিক উন্নয়নের কাজ করেন।’

বঙ্গবন্ধুর ১৯৭৫ সালের ২৬ মার্চ দেয়া ভাষণের লাইন তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আপনি চাকরি করেন, আপনার মাইনে দেয় এই গরিব কৃষক, আপনের মাইনে দেয় এই গরিব শ্রমিক, আপনার সংসার চলে ওই টাকায়, আমি গাড়ি চলি ওই টাকায়। ওদের সম্মান করে কথা বলুন, ইজ্জত করে কথা বলুন, ওরাই মালিক।’

প্রধানমন্ত্রী আশা করেন, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সংবিধানের প্রতি দায়বদ্ধ থেকে জনগণের সেবায় নিজেদের আত্মনিয়োগ করবেন।

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে ভাগ করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2021 Daily Chattagram
Developed By Shah Mohammad Robel