শনিবার, ০১ অক্টোবর ২০২২, ০২:১৮ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ নির্বাচন : ৬৮ প্রার্থীর প্রতীক প্রদান কেন্দ্রীয় আ.লীগ নেতা আমিনুল ইসলাম পুণরায় বার আউলিয়া ডিগ্রি কলেজ সভাপতি মনোনীত এসএসসি পরীক্ষার্থীকে উত্ত্যক্ত করায় ৬মাসের জেল, আনসার সদস্য আহত ডিসি মমিনুরের বিরুদ্ধে চক্রান্তের প্রতিবাদে ১০১ বীর মুক্তিযোদ্ধার বিবৃতি চট্টগ্রামে সীরাত মাহফিলের প্রস্তুতি সভায় ৩ কোটি টাকার বাজেট ঘোষণা চট্টগ্রামে চিকিৎসকদের ১০% ছাড় দিচ্ছে হাঙ্গার কিলার্স লোহাগাড়ায় ৫০ প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নেই ৬৮ জন শিক্ষক, ব্যাহত শিক্ষা কার্যক্রম শেখ হাসিনার বিরুদ্ধে দেশ-বিদেশে গভীর ষড়যন্ত্র চলছে: মোছলেম উদ্দীন এমপি চট্টগ্রামে একে-২২ রাইফেলসহ ৩ ডাকাত আটক লোহাগাড়ায় পাহাড় কাটার দায়ে ২ জনকে কারাদন্ড

ইসলাম শান্তি-সম্প্রীতি ও মানবতার ধর্ম: আমিনুল ইসলাম

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেটের সময় : শনিবার, ৩০ অক্টোবর, ২০২১
  • ৮৭ নিউজ ভিউ

ইসলাম শান্তি–সম্প্রীতি ও মানবতার ধর্ম। কোনো রূপ সহিংসতা ও বিবাদের স্থান ইসলামে নেই। ন্যূনতম শান্তি–শৃঙ্খলা ও সম্প্রীতি বিনষ্ট হয়, এমন আচরণকে ইসলাম কখনও সমর্থন করে না। সর্বক্ষেত্রে শান্তির বিধান নিশ্চিত করে প্রেম–প্রীতি, সৌহার্দ্য আর শান্তি ও সম্প্রীতির এক মাহাত্ম্যপূর্ণ বিধান বিশ্বজুড়ে প্রতিষ্ঠা করাই মহানবী (সা.) এর মূল লক্ষ্য ছিল।

২৯ অক্টোবর শুক্রবার বাদ মাগরিব শাহ্ সাহেব কেবলা চুনতী কর্তৃক প্রবর্তিত ঐতিহাসিক ১৯ দিন ব্যাপী সীরতুন্নবী(সাঃ) মাহফিলের ১২ তম দিবসে বিশেষ মেহমানের বক্তব্যে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের উপ–প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক চট্টলার কৃতি সন্তান আমিনুল ইসলাম উপরোক্ত কথাগুলো বলেন।

তিনি আরো বলেন, অমুসলিমের প্রতি কোনো অন্যায়–আচরণ ইসলাম অনুমোদন করে না। শান্তি–সৌহার্দ্য ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি সুরক্ষায় মহানবী (সা.) এর রয়েছে শাশ্বত আদর্শ ও সুমহান ঐতিহ্য।

কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা আমিনুল ইসলাম বলেন, কোনো মুসলিম যদি কোনো অমুসলিমের প্রতি অন্যায় করে, তবে রোজ–কেয়ামতে মহানবী (সা.) তার বিপক্ষে লড়বেন বলে হাদিসে এসেছে। রাসুল (সা.) বলেন, সাবধান! যদি কোনো মুসলিম কোনো অমুসলিম নাগরিকের ওপর নিপীড়ন চালিয়ে তার অধিকার খর্ব করে, তার ক্ষমতার বাইরে কষ্ট দেয় এবং তার কোনো বস্তু জোরপূর্বক নিয়ে যায়, তাহলে কেয়ামতের দিন আমি তার পক্ষে আল্লাহর দরবারে অভিযোগ উত্থাপন করব।

তিনি আরো বলেন, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় ইসলাম এতই সোচ্চার, রাসূল (সা.) নিজেদের জানমালের পাশাপাশি সংখ্যালঘু অমুসলিম সম্প্রদায়ের জানমাল রক্ষায় সচেষ্ট থাকার জন্যও মুসলমানদের প্রতি তাগিদ দিয়েছেন। শুধু তাই নয়, অন্য ধর্মাবলম্বী ও তাদের উপাসনালয়ের ওপর আঘাত–সহিংসতাও ইসলামে চিরতরে হারাম ও নাজায়েজ ঘোষণা করা হয়েছে।

অধ্যক্ষ ফারুক হোসেনের সঞ্চালনায় মাহফিলে এসময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খোরশেদ আলম চৌধুরী, সিনিয়র সহ-সভাপতি জান মোহাম্মদ সিকদার, যুগ্ম-সম্পাদক ফরিদ আহমদ, ইসলামী চিন্তাবিদ ও গবেষক আলহাজ্ব আহমদুল ইসলাম চৌধুরী, মাহফিল পরিচালনা পরিষদের সভাপতি শাহজাদা হাফিজুল ইসলাম মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ, জেলা পরিষদ সদস্য আনোয়ার কামাল, লোহাগাড়া প্রেস ক্লাব সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ও শাহ সাহেব কেবলার দৌহিত্র শাহজাদা তৈয়বুল হক বেদার, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ও প্রেস ক্লাব সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ ও শাহজাদা আব্দুল মালেক মোহাম্মদ ইবনে দিনার নাজাত প্রমুখ।

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে ভাগ করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2021 Daily Chattagram
Developed By Shah Mohammad Robel