1. jasimlohactgbd@gmail.com : DailyChattogram :
  2. contact.smrobel@gmail.com : DainikChattogram :
রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ০১:১১ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম

লোহাগাড়ায় স্বামীর নির্যাতনের শিকার স্ত্রী; কন্যা শিশুকে কোলে নিলেন ইউএনও

এইচ এম জসিম উদ্দীন
  • আপডেটের সময় : সোমবার, ২ মে, ২০২২
  • ৭৭ নিউজ ভিউ

লোহাগাড়ায় স্বামীর অত্যাচার ও নির্যাতন সইতে না পেরে অবশেষে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) কার্যালয়ে স্ত্রী আকলিমা বেগম (ছন্মনাম) । দুঃখিনীর কাহিনী শুনে ওই সময় তার ফুটফুটে ৬ মাস বয়সী কন্যা সন্তানকে গভীর মমতায় কোলে তুলে নিলেন ইউএনও মুহাম্মদ আহসান হাবিব জিতু। তাঁর আদর, স্নেহ ও পরম মমতায় এ অবুঝ শিশুটি বাবার শূন্য অনুভব করল। এ সময় শিশুকে দীর্ঘ ঘন্টারও বেশী সময় কোলে ধরে রাখলেন ইউএনও আহসান হাবিব জিতু। গত বৃহস্পতিবার ইউএনও কার্যালয়ে সরাসরি এমন দৃশ্য দেখল প্রতিবেদক।

দৃশ্যমান হল যে, ইউএনও’র কপালে, মুখে, ঠোঁটে অবুঝ শিশুটি অনবরত চুম্বন করছে। তদ্রুপ তিনিও আদর-স্নেহ ও ভালবাসার বহিঃপ্রকাশ ঘটাচ্ছিল। এ দৃশ্য দেখে মনে হল- মানবতার এক বিস্ময়!

কন্যা সন্তান আল্লাহ্র এক বিশেষ রহমত। কিন্তু, বাবাই সবচেয়ে প্রিয় ব্যক্তি হল ঐ শিশুটির কাছে। বাবার সেই শূণ্যতা সাময়িকের জন্য হলেও পূরণ করে এক অনন্য নজির স্থাপন করলেন ইউএনও আহসান হাবিব জিতু।

জানা যায়, ২০২১ সালের ৬ ফেব্রয়ারী ইসলামী শরীয়াহ্ মোতাবেক তাদের বিয়ের হয়। বিয়ের কয়েক মাস পর থেকে স্ত্রীকে অহেতুক মারধর করে স্বামী। পরে স্ত্রী জানতে পারে তার স্বামীর সাথে জোৎস্না বেগম নামের এক মেয়ের সাথে অবৈধ সম্পর্ক রয়েছে।

আরও জানা যায়, স্বামী বিগত ৭ মাস ধরে স্ত্রীর সাথে বাসায় রাত্রী যাপন করে না। স্বামী দিনের বেলায় মাঝে মধ্যে সামান্য বাজার নিয়ে এসে স্ত্রীকে মারধর ও নির্যাতন করে চলে যায়।

স্ত্রী আকলিমা বেগম (ছন্মনাম) বলেন, আমাকে মাঝে মধ্যে এসে মারধরসহ নানা রকম হুমকি-ধমকি দিচ্ছে। তিনি বলেন, ৬ মাস বয়সী এক কন্যা সন্তান নিয়ে এখন মানবেতর দিনযাপন করছি। প্রতিনিয়ত স্বামীর নির্যাতন ও হুমকিতে দিশেহারা হয়ে গেছি।

এদিকে, স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন জনের দ্বারে দ্বারে ঘুরেও কোন সুরাহা পাচ্ছেনা অসহায় এ মহিলা। অবশেষে ইউএনও’ন দারস্থ হলেন যথাযথ ব্যবস্থার জন্য।

এ প্রসঙ্গে জানতে তার স্বামীর সাথে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

এ প্রসঙ্গে লোহাগাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মুহাম্মদ আহসান হাবিব জিতু বলেন, আমারও একটি কন্যা সন্তান আছে। তাই, শিশুটি দেখে আমার সন্তানের মতো মনে হয়েছে। এ শিশুটিই আগামীর প্রধানমন্ত্রী, ইউএনও, ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার ও সাংবাদিক হতে পারে। তাই, প্রত্যেক পিতা-মাতার উচিৎ তার সন্তানের প্রতি অবহেলা না করা এবং সর্বোচ্চ চেষ্ট-প্রচেষ্টা দিয়ে তাকে মানুষের মত মানুষ করে গড়ে তোলা। এ নির্যাতিত মহিলাকে আইনগত সব ধরণের সহযোগিতা করা হবেও জানান তিনি।

এই পোস্টটি আপনার সামাজিক মিডিয়াতে ভাগ করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরও খবর
© All rights reserved © 2021 Daily Chattagram
Theme Customization By NewsSun